২০ জানুয়ারি ২০১৯, ৭ মাঘ ১৪২৫

Generic selectors
Exact matches only
Search in title
Search in content
Search in posts
Search in pages

খাবার খান নিয়ম মেনে

ডেস্ক রিপোর্ট, হেলথ নিউজ | ১০ জুন ২০১৮, ০০:০৬ | আপডেটেড ১০ জুন ২০১৮, ১২:০৬

dietery-health

বেঁচে থাকার জন্য খাবার দরকার। তবে যে কোনো খাবার যে কোনো সময় খেলে সুস্থ থাকা সম্ভব নয়। এক্ষেত্রে আয়ুর্বেদ বিশেষজ্ঞরা কিছু মৌলিক নিয়ম মানার পরামর্শ দিয়েছেন।

পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ

তাজা খাবার খাওয়া সবচেয়ে ভালো। বিদেশি নয়, বরং প্রতিটি ঋতুতে আমাদের আশেপাশেই যে খাবারগুলো পাওয়া যায়, তা থেকেই সবচেয়ে বেশি পুষ্টি আমরা পেয়ে থাকি। আমাদের শরীর এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে, যা প্রক্রিয়াজাত নয় বরং প্রাকৃতিক খাবার গ্রহণেই বেশি সক্ষম। তাই রিফাইন্ড নয়, বরং খেতে হবে হোল গ্রেইন, ফল ও প্রচুর পরিমাণে মৌসুমি সবজি। অর্গানিক খাবার খেতে পারলে আরও ভালো।

সুষম খাবার

প্রতিবেলার খাবারে খাদ্যতালিকার ছয়টি উপাদানই থাকা উচিত। তাহলে সুষম খাবার নিশ্চিত করা ও অতিরিক্ত খাদ্যগ্রহণ বর্জন করা সম্ভব।

প্রচুর সবজি ও ফল

নীল, বেগুনি, লাল, সবুজ, কমলা ইত্যাদি বিভিন্ন রংয়ের সবজি ও ফল দিয়ে নিজের থালা ভরিয়ে ফেলুন। এগুলোই হলো অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও পুষ্টির মূল উৎস, যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এছাড়া ফল ও সবজি আমাদের শরীর থেকে টক্সিন বের করে দিতে সহায়তাও করে।

সহজে হজমযোগ্য করে প্রস্তুত করুন

কাঁচা সবজি খেলে তা ভেঙে পুষ্টি গ্রহণ করতে শরীরের অনেক সময় লাগে, হজমেও দেরি হয়। সেই একই খাবারকে রান্না করে খেলে সহজেই তা হজম হয়। আয়ুর্বেদ বিশেষজ্ঞরা খাবারকে হালকা ভেজে, ভাঁপে সিদ্ধ ও রান্না করে খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। আর সালাদ খেতে হলে দুপুর বেলা তা খাওয়া ভালো বলেও মনে করেন তারা।

মশলার ব্যবহার

আমাদের প্রতিদিনের খাবারে মশলার উপস্থিতি অপরিহার্য। খাবারে স্বাদ বাড়াতে আমরা এগুলো ব্যবহার করি। তবে মশলা যে খাবারের পুষ্টিও বাড়িয়ে দেয় তা অনেকেই জানি না। বিভিন্ন ধরনের মশলা খাবার হজমে ও পুষ্টি শোষণে সহায়তা করে।

খাবার খান ধীরে ধীরে, বুঝে শুনে

ঠিকমতো খাবার হজম না হলে শরীরে টক্সিন জমতে পারে । এটা এড়াতে কম্পিউটার বা টেলিভিশনের সামনে নয় বরং শান্তিপূর্ণ কোনো পরিবেশে বসে খাবার গ্রহণ করুন। ক্ষুধা পেলেই কেবল খাবার খান। খুব তাড়াহুড়া বা খুবই আস্তে আস্তে নয় বরং এ দুটোর মধ্যম পর্যায়ে খাবার গ্রহণ করুন।

পানি পান করুন

পানি পানের উদ্দেশ্য হলে শরীরকে আর্দ্র্র রাখা। গরমকালে বরফ শীতল পানি খেতে ভালো লাগলেও আসলে তা স্বাস্থ্যসম্মত নয়। বরং ঘরের তাপমাত্রায় থাকা পানি খাওয়া ভালো। আর উষ্ণ পানি পানে শরীর থেকে টক্সিন বেরিয়ে যায়।

সূত্র: এনডিটিভি

নোটিশ: স্বাস্থ্য বিষয়ক এসব সংবাদ ও তথ্য দেওয়ার সাধারণ উদ্দেশ্য পাঠকদের জানানো এবং সচেতন করা। এটা চিকিৎসকের পরামর্শের বিকল্প নয়। সুনির্দিষ্ট কোনো সমস্যার জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াই শ্রেয়।

স্বাস্থ্য সেবায় যাত্রা শুরু

আঙুর কেন খাবেন?

ছোট এ রসালো ফলটিতে আছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, খনিজ ও ভিটামিন। আঙুরে রয়েছে ভিটামিন কে, সি, বি১, বি৬ এবং খনিজ উপাদান ম্যাংগানিজ ও পটাশিয়াম। আঙুর কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা ও হৃদরোগের মতো রোগ প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

সব টিপস...

চকলেটে ব্রণ হয়?

এই পরীক্ষাটি চালাতে গবেষকরা একদল ব্যক্তিকে এক মাস ধরে ক্যান্ডি বার খাওয়ায় যাতে চকলেটের পরিমাণ ছিল সাধারণ একটা চকলেটের চেয়ে ১০ গুণ বেশি। আরেক দলকে খাওয়ানো হয় নকল চকলেট বার। চকলেট খাওয়ানোর আগের ও পরের অবস্থা পরীক্ষা করে কোনো পার্থক্য তারা খুঁজে পাননি। ব্রণের ওপর চকলেট বা এতে থাকা চর্বির কোনো প্রভাব রয়েছে বলেও মনে হয়নি তাদের।

আরও পড়ুন...

            গর্ভপাত এড়াতে যা জানা চাই

300-250
promo3