খোলা খাবারে স্বাস্থ্যঝুঁকিতে রাজশাহীর স্কুলশিশুরা

তারেক মাহমুদ, রাজশাহী প্রতিনিধি, হেলথ নিউজ | ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:০৯ | আপডেটেড ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৯:০৯

rajshahii-school-1

রাজশাহীর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর সামনে ভ্রাম্যমাণ দোকানের নানা খাবার শিশুদের স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে ফেলতে পারে বলে সতর্ক করেছেন চিকিৎসকরা।

এসব দোকানে চানাচুর, রং মেশানো আইসক্রিম, বিভিন্ন আচার, ফুচকা, চটপটি, ঝালমুড়ি, নুডলস, শরবত বিক্রি হতে দেখা যায়।

নগরীর সরকারি পিএন উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়, রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল, রাজশাহী গভ. ল্যাবরেটরি স্কুল, বহুমুখী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, হেলেনাবাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায়, স্কুলশিশুরা দেদারসে কিনছে এসব খাবার।

নগরীর প্রাণকেন্দ্রে রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলের সামনে প্রতিদিন টিফিনের সময় স্কুলের গেইট বন্ধ থাকার পরও তার নিচ দিয়ে এসব খাবার কিনতে দেখা যায় শিশুদের। এচিত্র অন্য স্কুলগুলোতেও।

এ সব দোকানে খাবার ঢেকে রাখা হয় না বলে রাস্তার ধুলোবালি পড়ছে। খাবারের উপর উড়ছে মাছিও।

চিকিৎসকদের মতে, রাস্তার পাশে খোলা পরিবেশে বিক্রি হওয়া এসব খাবার খেলে শরীরের মধ্যে বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়া-ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। এতে ডায়রিয়া, টাইফয়েড, জন্ডিস, হেপাটাইটিসসহ অনেক সংক্রামণ রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে।

স্কুলের সামনে এসব দোকানের বিষয়ে কলেজিয়েট স্কুলের প্রধান শিক্ষিক নূরজাহান বেগম হেলথ নিউজকে বলেন, “আমাদের বাচ্চাদের জন্য স্কুল থেকে টিফিনের ব্যবস্থা থাকে। আমরা বাচ্চাদের স্বাস্থ্যকর খাবার পরিবেশন করি। টিফিনের মেনুতে ডিম-খিচুড়ি, কলা রুটি, ভেজিটেবল রোলসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্যকর খাবার দেওয়ার চেষ্টা করি।

“কিন্তু কিছু কিছু শিক্ষার্থী বাইরের এসকল খাবার না বুঝে খায়। আমরা তাদের ক্লাসে এসকল খাবার খেতে নিষেধ করি। স্কুলের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অভিভাবকদের মাধ্যমে তাদের সচেতন করার চেষ্টা করি।”

কলেজিয়েট স্কুলের সামনে এক অভিভাবক নারগিস সুলতানা হেলথ নিউজকে বলেন, “আমরা বাচ্চাদের বাইরের খাবার খেতে নিষেধ করি। তারপর মুখরোচক হওয়ায় বাচ্চারা এসব খাবারে আসক্ত হয়ে পড়ে।”

শহীদ নজমুল হক স্কুলের সামনে আরেক অভিভাবক সাবিনা নাজনিন হেলথ নিউজকে বলেন, “এই খাবারগুলো অস্বাস্থ্যকর জানি, তারপরও আমার বাচ্চাও মাঝে মাঝে খায়। কয়েক দিন আগে তার ডায়রিয়া হয়েছিল চটপটি খেয়ে। তাকে সাবধান করেছি, এ সব খাবার না খেতে।”

রাজশাহী মেডিকেল কলেজের লিভার পরিপাকতন্ত্র ও মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মোহা. হারুন আর-রশীদ হেলথ নিউজকে বলেন, স্কুল-কলেজের সামনে রাস্তার পাশে যে সব খাবারের দোকানে খোলাভাবে রেখে খাবার বিক্রি করা হয়, তা খুবই অস্বাস্থ্যকর ও ঝুঁকিপূর্ণ। এসব খাবার খেয়ে স্কুলের বাচ্চারা বিভিন্ন রকমের অসুখে আক্রান্ত হচ্ছে।

“এই খাবারের কারণে বাচ্চাদের শরীরের মাঝে ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। যার মাধ্যমে ডায়রিয়া, টাইফয়েড, জন্ডিস, হেপাটাইটিস-এ এবং হেপাটাইটিস- ই ব্যধিতে আক্রান্ত হচ্ছে।”

এসব খাবার খেয়ে বাচ্চারা অসুস্থ হয়ে পড়লে কবিরাজি চিকিৎসা না করে দ্রুত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে বলেছেস ডা. হারুন।

তিনি এ বিষয়ে স্কুলের শিক্ষক এবং অভিভাবকদের সতর্ক হওয়ার পরামর্শও দেন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. মো. খলিলুর রহমান হেলথ নিউজকে বলেন, “এ সকল খাবার বাচ্চাদের জন্য খুব ক্ষতিকর। অভিভাবক এবং স্কুলের শিক্ষকদের এ বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। অভিভাবকদের এ বিষয়ে গুরুত্ব বাড়াতে হবে যেন রং মেশানো খাবার বাচ্চারা না খায়।”

কলেজিয়েট স্কুলের প্রধান শিক্ষক নূরজাহান বলেন, “আমাদের গেটম্যানকে নির্দেশনা দেওয়া আছে যেন স্কুল কম্পাউন্ডের ভেতরে কেউ এসব খাবার বিক্রি না করে। এ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের আরও সচেতন করার বিভিন্ন উদ্যোগও গ্রহণ করা হয়েছে।”

বিষয়:

নোটিশ: স্বাস্থ্য বিষয়ক এসব সংবাদ ও তথ্য দেওয়ার সাধারণ উদ্দেশ্য পাঠকদের জানানো এবং সচেতন করা। এটা চিকিৎসকের পরামর্শের বিকল্প নয়। সুনির্দিষ্ট কোনো সমস্যার জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াই শ্রেয়।

এমন ভারতবর্ষ দেখেনি কেউ আগে

এমন ভারতবর্ষ দেখেনি কেউ আগে

দেশে করোনায় মৃত্যুর মিছিলে ১১ হাজারেরও বেশি মানুষ

সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ

কমছে মৃত্যু, বাড়ছে স্বস্তি

খালি হাতেই পার হতে হবে দ্বিতীয় ঢেউ !

সর্বত্রই এখনো অসহায় আত্মসমর্পণ

মৃত্যু পৌণে ১২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে

পৌণে ১২ লাখ মানুষ মারা গেলেন

করোনায় মৃত ৫ হাজার ছাড়ালো

করোনাভাইরাসে পৃথিবীর ৮ লাখ মানুষ নেই

সাড়ে ৭ লাখের বেশি মানুষ মারা গেলেন করোনায়

বিশ্বে একদিনেই ২ লাখ আক্রান্ত

আক্রান্ত ও মৃত্যু বাড়ছেই

নির্ধারিত মুল্যে আইসিডিডিআরবিতে করোনা টেষ্ট

২৪ ঘন্টায় প্রায় ৪ হাজার আক্রান্ত

৩৮ থেকে বেড়ে মৃত্যু ৪৩

ব্রাজিলে একদিনেই শনাক্ত ৫৪ হাজারের বেশি

সপ্তাহ ধরেই মৃত্যু কমপক্ষে ৩৫

মৃত্যু নেমেছে ৪৫ থেকে ৩৭ জনে

স্বাস্থ্য সেবায় যাত্রা শুরু

আঙুর কেন খাবেন?

ছোট এ রসালো ফলটিতে আছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, খনিজ ও ভিটামিন। আঙুরে রয়েছে ভিটামিন কে, সি, বি১, বি৬ এবং খনিজ উপাদান ম্যাংগানিজ ও পটাশিয়াম। আঙুর কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা ও হৃদরোগের মতো রোগ প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

সব টিপস...

চকলেটে ব্রণ হয়?

এই পরীক্ষাটি চালাতে গবেষকরা একদল ব্যক্তিকে এক মাস ধরে ক্যান্ডি বার খাওয়ায় যাতে চকলেটের পরিমাণ ছিল সাধারণ একটা চকলেটের চেয়ে ১০ গুণ বেশি। আরেক দলকে খাওয়ানো হয় নকল চকলেট বার। চকলেট খাওয়ানোর আগের ও পরের অবস্থা পরীক্ষা করে কোনো পার্থক্য তারা খুঁজে পাননি। ব্রণের ওপর চকলেট বা এতে থাকা চর্বির কোনো প্রভাব রয়েছে বলেও মনে হয়নি তাদের।

আরও পড়ুন...

      ভিটামিন ডির ঘাটতি পূরণে কী করণীয়?

300-250
promo3