দেরিতে নাস্তায় বিএমআইয়ে গড়বড়

ডেস্ক রিপোর্ট, হেলথ নিউজ | ৩১ মে ২০১৮, ১৭:০৫ | আপডেটেড ২ জুন ২০১৮, ০৪:০৬

IMG_9100

টাইপ টু ডায়াবেটিসের রোগীরা দেরিতে সকালের নাস্তা খেলে তাদের বডি মাস ইনডেক্স (বিএমআই) বাড়তে পারে।

সম্প্রতি ডায়াবেটিক মেডিসিন সাময়িকীতে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদনে একথা বলা হয়েছে।

উচ্চতা অনুযায়ী কতটুকু ওজন থাকা ঠিক, তা নির্ণয় করা হয় বিএমআই হিসেবের মাধ্যমে।

ইলিনয় ইউনিভার্সিটির এন্ডেক্রাইনোলজি, ডায়াবেটিস ও মেটাবলিজমের সহযোগী অধ্যাপক ড. সিরিমন রিউট্রাকুলের নেতৃত্বে একদল গবেষক এ গবেষণা করেন।

টাইপ টু ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের মধ্যে যারা সকালে দেরি করে ওঠে তাদের বিএমআই বাড়ার ঝুঁকি বেশি কি না এবং যদি সত্যিই তা হয় তাহলে এর পেছনে কারণ খুঁজে বের করার চেষ্টা করা হয় এ গবেষণায়।

থাইল্যান্ডের টাইপ টু ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ২১০ জন নন শিফট কর্মীর ওপর এ গবেষণা করা হয়। সকালে ঘুম থেকে ওঠার ও রাতে ঘুমাতে যাওয়ার পছন্দনীয় সময়, দিনের কোন সময়ে শরীরচর্চা করা হয়, কোন সময়ে মানসিক কাজ  (যেমন, পড়াশুনা) করা হয় ইত্যাদি প্রশ্ন সম্বলিত একটি প্রশ্নপত্র পূরণ করতে দেওয়া হয় অংশগ্রহণকারীদের।

প্রশ্নপত্রের নম্বরের সীমা ছিল ১৩ (গভীর রাত পর্যন্ত জাগা) থেকে ৫৫ (খুব ভোরে ঘুম থেকে ওঠে) পর্যন্ত। প্রশ্নপত্র অনুযায়ী, যারা ৪৫ এর কম নম্বর পেয়েছে তারা রাত জাগে, আর ৪৫ বা তার কম পেয়েছে তারা সকালে উঠতে পছন্দ করে।

অংশগ্রহণকারীরা দিনের কোন কোন সময় খাবার গ্রহণ করে, সে বিষয়ে সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। একইসঙ্গে একদিনের খাবারের হিসেব থেকে তাদের দৈনিক ক্যালরি গ্রহণের হিসেব বের করা হয়।

প্রত্যেক অংশগ্রহণকারীর ওজন নেওয়া হয় ও বিএমআই নির্ণয় করা হয়। আর সাক্ষাৎকার ও প্রশ্নপত্র থেকে বের করা হয় তাদের ঘুমের পরিমাণ।

পর্যালোচনায় দেখা যায়, অংশগ্রহণকারীদের ঘুমের পরিমাণ ছিল প্রতি রাতে গড়ে সাড় পাঁচ ঘণ্টা। গড়ে দৈনিক তারা ১১০০ ক্যালরির খাবার গ্রহণ করতেন। তাদের গড় বিএমআই ছিল ২৮.৪, যা অতিরিক্ত ওজনের নির্দেশক।

অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ৯৭ জন রাত জেগে থেকে সকালে দেরিতে উঠতে আর বাকি ১১৩ জন সকালে তাড়াতাড়ি উঠতে পছন্দ করতেন।

সকালে যারা তাড়াতাড়ি উঠতেন, তারা নাস্তা খেতেন সকাল সাতটা থেকে সাড়ে আটটার মধ্যে। আর দেরিতে যারা উঠতেন, তাদের নাস্তা খাওয়ার সময় ছিল সাড়ে সাতটা থেকে নয়টা।

সকালে যারা উঠতেন, তারা শুধু সকালের খাবার তাড়াতাড়ি খেতেন, তা নয়। বরং দুপুরের খাবার, রাতের খাবার ও ঘুমের আগের শেষ খাবারও খেতেন অন্যদের চেয়ে আগে।

শেষে দেখা যায়, যারা রাতে দেরি ঘুমাতেন তাদের বিএমআই বেশি ছিল। তবে বিএমআই বাড়ার সঙ্গে ক্যালরি গ্রহণ, দুপুর ও রাতের খাবার গ্রহণের কোনো সম্পর্ক খুঁজে পাওয়া যায়নি।

ড. রিউট্রাকুল বলেন, “টাইপ টু ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের মধ্যে যারা দেরিতে সকালের নাস্তা খান তাদের বিএমআই বাড়ার ঝুঁকি রয়েছে। তাড়াতাড়ি নাস্তা খেলে এদের ওজন কমবে কি না সে বিষয়ে আরও গবেষণা করতে হবে।”

নোটিশ: স্বাস্থ্য বিষয়ক এসব সংবাদ ও তথ্য দেওয়ার সাধারণ উদ্দেশ্য পাঠকদের জানানো এবং সচেতন করা। এটা চিকিৎসকের পরামর্শের বিকল্প নয়। সুনির্দিষ্ট কোনো সমস্যার জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াই শ্রেয়।

মহামারিতে রূপ নিচ্ছে ডায়াবেটিস

সাড়ে ৩ লাখ শিশু এইডসে মৃত্যুর ঝুঁকিতে

অতিরিক্ত ওজন বাড়াচ্ছে ক্যান্সার: গবেষণা

দুই ক্যান্সার গবেষকের নোবেল জয়

৩টি অভ্যাস করুন, দূরে রাখুন হৃদরোগ

হৃদরোগের ইতিবৃত্ত

দেশে হৃদরোগ ও ডায়াবেটিকের ঝুঁকি বেশি নারীদের

রক্ত পরীক্ষায় কয়েক মিনিটে ধরা পড়বে ক্যান্সার!

রামেকে ক্যান্সার চিকিৎসায় পুনরায় কোবাল্ট-৬০ মেশিন

যক্ষ্মা গ্রামের চেয়ে শহরে বেশি

চিনি খেলে ডায়াবেটিস হয়?

ক্যান্সারে আক্রান্ত সোনালী বেন্দ্রে

ঘরে ঘরে জ্বর, চাই সাবধানতা

বেশি সময় টিভি দেখেন? সাবধান হোন এখনই

রোগী নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে ক্যান্সার হাসপাতাল

দেশে চাই ১৬০টি ক্যান্সার হাসপাতাল, আছে ১৯টি

স্তন ক্যান্সারের চিকিৎসায় বিস্ময়কর সাফল্য

কোন খাবারে কত চিনি

ডায়াবেটিস এড়াতে নজরে রাখুন এই ১৫ খাবার

স্বাস্থ্য সেবায় যাত্রা শুরু

আঙুর কেন খাবেন?

ছোট এ রসালো ফলটিতে আছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, খনিজ ও ভিটামিন। আঙুরে রয়েছে ভিটামিন কে, সি, বি১, বি৬ এবং খনিজ উপাদান ম্যাংগানিজ ও পটাশিয়াম। আঙুর কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা ও হৃদরোগের মতো রোগ প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

সব টিপস...

চকলেটে ব্রণ হয়?

এই পরীক্ষাটি চালাতে গবেষকরা একদল ব্যক্তিকে এক মাস ধরে ক্যান্ডি বার খাওয়ায় যাতে চকলেটের পরিমাণ ছিল সাধারণ একটা চকলেটের চেয়ে ১০ গুণ বেশি। আরেক দলকে খাওয়ানো হয় নকল চকলেট বার। চকলেট খাওয়ানোর আগের ও পরের অবস্থা পরীক্ষা করে কোনো পার্থক্য তারা খুঁজে পাননি। ব্রণের ওপর চকলেট বা এতে থাকা চর্বির কোনো প্রভাব রয়েছে বলেও মনে হয়নি তাদের।

আরও পড়ুন...

      ভিটামিন ডির ঘাটতি পূরণে কী করণীয়?

300-250
promo3