দেশে হৃদরোগ ও ডায়াবেটিকের ঝুঁকি বেশি নারীদের

ডেস্ক রিপোর্ট, হেলথ নিউজ | ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০৯ | আপডেটেড ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:০৯

women--ruuning

বাংলাদেশের নারীরা পুরুষের তুলনায় কায়িক শ্রমে কম সক্রিয় বলে হৃদরোগ ও ডায়াবেটিকের ঝুঁকি তাদেরই বেশি।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সাম্প্রতিক গবেষণায় এই চিত্র উঠে এসেছে। বুধবার ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নাল দ্য ল্যান্সেটে গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বে প্রতি চারজনে একজন পূর্ণ বয়স্ক ব্যক্তি শারীরিকভাবে নিষ্ক্রিয় থাকেন। অর্থাৎ বিশ্বে ১৪০ কোটি মানুষের ২৮ শতাংশই শারীরিকভাবে সক্রিয় নন।

গবেষণায় যুক্ত বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অপর্যাপ্ত কায়িক শ্রমের কারণে বাড়ছে অসংক্রামক রোগের ঝুঁকি। মানসিক স্বাস্থ্য ও উন্নত জীবন চর্চাতেও রয়েছে এর নেতিবাচক প্রভাব।

গবেষণায় দেখা গেছে, ১৬৮টি দেশের মধ্যে ১৫৯টি দেশে অপর্যাপ্ত কায়িক শ্রমের হার নারীদের চেয়ে পুরুষদের কম। মোট ৬৫টি দেশে এই তুলনামূলক পার্থক্য ১০ শতাংশ।

অন্যদিকে ২০ শতাংশ পার্থক্যে যে নয়টি দেশে পুরুষদের চেয়ে নারীরা শারীরিক পরিশ্রমে কম সক্রিয়, সেই তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশও।

বাংলাদেশে পুরুষদের ক্ষেত্রে অপর্যাপ্ত শারীরিক শ্রমের হার ২০ থেকে ২৯ দশমিক ৯ শতাংশ, নারীদের ক্ষেত্রে তা ৩০ থেকে ৩৯ দশমিক ৯ শতাংশ।

ডব্লিউএইচও’র ২০১৪ সালের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, বাংলাদেশে অসংক্রামক রোগে মৃত্যুর হার ৫৯ শতাংশ। এর মধ্যে হৃদরোগে মারা যায় সবচেয়ে বেশি, ১৭ শতাংশ। এছাড়াও ফুসফুসের অসুখ ও ক্যান্সারে মারা যায় ১০ শতাংশ।

এদিকে বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলের চেয়ে এই রোগগুলো বাংলাদেশসহ এশিয়ার মানুষদের জন্য ক্ষতিকর হয়ে উঠছে জানিয়ে গত অক্টোবরেই সতর্ক করেছিল এনসিডি অ্যালায়েন্স।

গত বছর বিশ্ব স্থূলতা দিবসে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোতে শারীরিক স্থূলতার হার বেড়ে যাওয়া নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিল ল্যান্সেট।

ল্যান্সেটের পরিসংখ্যান মতে ২০১৬ সালে বাংলাদেশে পাঁচ থেকে ১৯ বছরের ছেলেদের বেলায় এই হার তিন শতাংশ; যা ১৯৭৫ সালে ছিল মাত্র শূন্য দশমিক শূন্য তিন শতাংশ।

একই বয়সী মেয়েদের বেলায় মাত্র চার দশকে প্রায় শূন্য থেকে এই হার বেড়ে দাঁড়ায় দুই দশমিক তিন শতাংশ।

২০১৪ সালে করা বিশ্বব্যাপী স্কুল-ভিত্তিক স্বাস্থ্য জরিপের ফলাফলে দেখা যায়, বাংলাদেশের ৫৯ শতাংশ কিশোর-কিশোরী শারীরিকভাবে ‘অপর্যাপ্ত সক্রিয়’ এবং ৭৯ শতাংশ বিনোদনের জন্য কমপিউটার বা টিভি স্ক্রিনে চোখ রেখে সময় কাটায়।

বিষয়:

নোটিশ: স্বাস্থ্য বিষয়ক এসব সংবাদ ও তথ্য দেওয়ার সাধারণ উদ্দেশ্য পাঠকদের জানানো এবং সচেতন করা। এটা চিকিৎসকের পরামর্শের বিকল্প নয়। সুনির্দিষ্ট কোনো সমস্যার জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াই শ্রেয়।

এমন ভারতবর্ষ দেখেনি কেউ আগে

এমন ভারতবর্ষ দেখেনি কেউ আগে

দেশে করোনায় মৃত্যুর মিছিলে ১১ হাজারেরও বেশি মানুষ

সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ

কমছে মৃত্যু, বাড়ছে স্বস্তি

খালি হাতেই পার হতে হবে দ্বিতীয় ঢেউ !

সর্বত্রই এখনো অসহায় আত্মসমর্পণ

মৃত্যু পৌণে ১২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে

পৌণে ১২ লাখ মানুষ মারা গেলেন

করোনায় মৃত ৫ হাজার ছাড়ালো

করোনাভাইরাসে পৃথিবীর ৮ লাখ মানুষ নেই

সাড়ে ৭ লাখের বেশি মানুষ মারা গেলেন করোনায়

বিশ্বে একদিনেই ২ লাখ আক্রান্ত

আক্রান্ত ও মৃত্যু বাড়ছেই

নির্ধারিত মুল্যে আইসিডিডিআরবিতে করোনা টেষ্ট

২৪ ঘন্টায় প্রায় ৪ হাজার আক্রান্ত

৩৮ থেকে বেড়ে মৃত্যু ৪৩

ব্রাজিলে একদিনেই শনাক্ত ৫৪ হাজারের বেশি

সপ্তাহ ধরেই মৃত্যু কমপক্ষে ৩৫

মৃত্যু নেমেছে ৪৫ থেকে ৩৭ জনে

স্বাস্থ্য সেবায় যাত্রা শুরু

আঙুর কেন খাবেন?

ছোট এ রসালো ফলটিতে আছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, খনিজ ও ভিটামিন। আঙুরে রয়েছে ভিটামিন কে, সি, বি১, বি৬ এবং খনিজ উপাদান ম্যাংগানিজ ও পটাশিয়াম। আঙুর কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা ও হৃদরোগের মতো রোগ প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

সব টিপস...

চকলেটে ব্রণ হয়?

এই পরীক্ষাটি চালাতে গবেষকরা একদল ব্যক্তিকে এক মাস ধরে ক্যান্ডি বার খাওয়ায় যাতে চকলেটের পরিমাণ ছিল সাধারণ একটা চকলেটের চেয়ে ১০ গুণ বেশি। আরেক দলকে খাওয়ানো হয় নকল চকলেট বার। চকলেট খাওয়ানোর আগের ও পরের অবস্থা পরীক্ষা করে কোনো পার্থক্য তারা খুঁজে পাননি। ব্রণের ওপর চকলেট বা এতে থাকা চর্বির কোনো প্রভাব রয়েছে বলেও মনে হয়নি তাদের।

আরও পড়ুন...

      ভিটামিন ডির ঘাটতি পূরণে কী করণীয়?

300-250
promo3