রাজশাহীতে ৪০% মানুষ ফ্যাটি লিভারে আক্রান্ত!

তারেক মহমুদ, রাজশাহী প্রতিনিধি হেলথ নিউজ | ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:০৯ | আপডেটেড ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৯:০৯

raj-mdi

মানবদেহের অঙ্গের মধ্যে লিভার বা যকৃৎ একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। লিভারের সমস্যা সম্পর্কে সবার কম-বেশি জানা থাকলেও ‘ফ্যাটি লিভার’ সম্পর্কে অনেকেরই ধারণা নেই।

লিভারের কোষে যখন অতিরিক্ত পরিমাণে ফ্যাট বা চর্বি জমে তখনই ‘ফ্যাটি লিভার’ সৃষ্টি হয়।

সারা দেশে দিনে দিনে ‘ফ্যাটি লিভার’ রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। রাজশাহীতেও এই রোগের প্রাদুর্ভাব বাড়ছে এবং তা বিভাগের মোট জনসংখ্যার ৪০ শতাংশ বলে চিকিৎসকদের দাবি।

সোমবার সন্ধ্যায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাজশাহীর পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ফ্যাটি লিভারে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিতে এসেছেন শতাধিক রোগী।

রানা আহমেদ নামে একজন হেলথ নিউজকে বলেন, “সারা জীবন ইচ্ছে মতো খেয়েছি, তেমন সমস্যা হয়নি। কিন্তু একটু বয়স বাড়ার সাথে সাথে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিয়েছে শরীরে। বেশি খেলেই শরীরে সমস্যা হয়। কয়েক মাস ধরে চিকিৎসা নিচ্ছি ডাক্তারের পরামর্শ অনুয়ায়ী।”

আরেক রোগী মারুফা খাতুন হেলথ নিউজকে বলেন, “দীর্ঘদিন পেটের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে ডাক্তার দেখাচ্ছি, ডাক্তারের পরামর্শ অনুয়াযী চলছি। এখন আগের থেকে অনেকটা সুস্থ বোধ করছি।”

বেসরকারি এই রোগ নিরূপণ কেন্দ্রের কর্মীরা জানান, এখানে প্রতিদিন শতাধিক রোগী এই সমস্যা নিয়ে ডাক্তার দেখাতে আসেন।

রামেক হাসপাতালের কর্মকর্তারা জানান, গোটা রাজশাহীর জনসংখ্যার প্রায় ৪০ শতাংশ মানুষ ফ্যাটি লিভারে আক্রান্ত এবং ডায়াবেটিক রোগীদের প্রায় ৯০ ভাগ মানুষ এই রোগে আক্রান্ত।

চিকিৎসকরা বলছেন, এই রোগের মূল কারণ অসচেতনতা, ডায়বেটিক থাকা, শরীরে চর্বির পরিমাণ বেশি থাকা, থাইরয়েডসহ হরমোন জাতীয় সমস্যা এবং শরীর অতিরিক্ত মেদ।

মাত্রাতিরিক্ত খাওয়া, জাঙ্কফুড খাওয়া, হাঁটাহাটি না করা এই রোগের বিস্তারের কারণ বলে চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন। তারা বলেন, আয়েশী জীবনযাপন করেলে লিভারে চর্বি জমে পরবর্তীতে ধীরে ধীরে তা ‘ফ্যাটি লিভারে’ রূপ নেয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ‘ফ্যাটি লিভার’ রোগ দুই ধরনের হয়ে থাকে। অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার এবং নন-অ্যালকোহলিক ফ্যাটি লিভার। প্রথম সমস্যাটি হয় অত্যাধিক মদপানের কারণে। অন্যটি হয় অতিরিক্ত জাঙ্ক ফুড এবং ফাস্ট ফুড খাওয়া এবং অনিয়মিত জীবনযাত্রার কারণে। আবার অনেকের ক্ষেত্রে এই রোগ বংশগত কারণেও হয়ে থাকে।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজের লিভার, পরিপাকতন্ত্র ও মেডিসিনের সহকারী অধ্যাপক  ডা. হারুন আর রশীদ হেলথ নিউজকে বলেন, “বর্তমানে মানুষ অতি আরামপ্রিয় হয়ে যাচ্ছে। বিশৃঙ্খল জীবন যাপন করছে, মানসিক চাপও বাড়ছে। যা ধীরে ধীরে শরীরের সমস্যা ও রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থার উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। যার ফলে বেড়ে যাচ্ছে স্থুলতা এবং ফ্যাটি লিভার, ডায়বেটিস, হৃদরোগসহ আরও বিভিন্ন মেটাবলিক রোগ।”

অনেক  ক্ষেত্রেই এই রোগের কোনো লক্ষণ বা শারীরিক সমস্যা দেখা যায় না বলে একে ‘শব্দহীন ঘণ্টা বা নীরব ঘাতক’ বলা হয়।

ডা. হারুন জানান, প্রাথমিক অবস্থায় এ রোগে লিভারের কোনো ক্ষতি না হলেও পর্যায়ক্রমে লিভারের প্রদাহ সৃষ্টি হতে পারে। ফলে লিভারের কোষ ভাঙতে শুরু করে। ধীরে ধীরে লিভারের ক্ষত বেড়ে গিয়ে লিভারে তন্তুময় অবস্থায় (ফিফরোসিস) তৈরি হয়ে থাকে এবং লিভার শক্ত আকার ধারণ করতে থাকে। ফলে লিভার হারায় তার স্বাভাবিক কার্যক্ষমতা আর এই অবস্থাকে বলা হয় লিভার সিরোসিস, যা পরবর্তীতে লিভারে ক্যান্সারে পরিণত হয়।

এই চিকিৎসকের মতে, প্রাথমিক অবস্থায় ধরা পড়লে ফ্যাটি লিভার রোগ নিরাময় এবং রোগ সম্মিলিত জটিলতা প্রতিরোধ করা সম্ভাব। অনেক ক্ষেত্রে ফ্যাটি লিভার রোগ দীর্ঘমেয়াদি হয়, এক্ষেত্রে ধৈর্য ধরে চিকিৎসকের নির্দেশিত ওষুধ, নিয়মবলী সঠিক মাত্রায় এবং নির্দিষ্ট সময়কাল পর্যন্ত গ্রহণ করতে হবে।

ফ্যাটি লিভার রোগে সম্পর্কে সচেতন হয়ে নিয়ন্ত্রিত জীবন-যাপনের পরামর্শ দিয়েছেন ডা. হারুন।

তিনি বলেন, নিয়মিত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা এ ঘাতক ব্যাধির অভিশাপ থেকে মুক্তির উপায়।

বিষয়:

নোটিশ: স্বাস্থ্য বিষয়ক এসব সংবাদ ও তথ্য দেওয়ার সাধারণ উদ্দেশ্য পাঠকদের জানানো এবং সচেতন করা। এটা চিকিৎসকের পরামর্শের বিকল্প নয়। সুনির্দিষ্ট কোনো সমস্যার জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াই শ্রেয়।

এমন ভারতবর্ষ দেখেনি কেউ আগে

এমন ভারতবর্ষ দেখেনি কেউ আগে

দেশে করোনায় মৃত্যুর মিছিলে ১১ হাজারেরও বেশি মানুষ

সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ

কমছে মৃত্যু, বাড়ছে স্বস্তি

খালি হাতেই পার হতে হবে দ্বিতীয় ঢেউ !

সর্বত্রই এখনো অসহায় আত্মসমর্পণ

মৃত্যু পৌণে ১২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে

পৌণে ১২ লাখ মানুষ মারা গেলেন

করোনায় মৃত ৫ হাজার ছাড়ালো

করোনাভাইরাসে পৃথিবীর ৮ লাখ মানুষ নেই

সাড়ে ৭ লাখের বেশি মানুষ মারা গেলেন করোনায়

বিশ্বে একদিনেই ২ লাখ আক্রান্ত

আক্রান্ত ও মৃত্যু বাড়ছেই

নির্ধারিত মুল্যে আইসিডিডিআরবিতে করোনা টেষ্ট

২৪ ঘন্টায় প্রায় ৪ হাজার আক্রান্ত

৩৮ থেকে বেড়ে মৃত্যু ৪৩

ব্রাজিলে একদিনেই শনাক্ত ৫৪ হাজারের বেশি

সপ্তাহ ধরেই মৃত্যু কমপক্ষে ৩৫

মৃত্যু নেমেছে ৪৫ থেকে ৩৭ জনে

স্বাস্থ্য সেবায় যাত্রা শুরু

আঙুর কেন খাবেন?

ছোট এ রসালো ফলটিতে আছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, খনিজ ও ভিটামিন। আঙুরে রয়েছে ভিটামিন কে, সি, বি১, বি৬ এবং খনিজ উপাদান ম্যাংগানিজ ও পটাশিয়াম। আঙুর কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা ও হৃদরোগের মতো রোগ প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

সব টিপস...

চকলেটে ব্রণ হয়?

এই পরীক্ষাটি চালাতে গবেষকরা একদল ব্যক্তিকে এক মাস ধরে ক্যান্ডি বার খাওয়ায় যাতে চকলেটের পরিমাণ ছিল সাধারণ একটা চকলেটের চেয়ে ১০ গুণ বেশি। আরেক দলকে খাওয়ানো হয় নকল চকলেট বার। চকলেট খাওয়ানোর আগের ও পরের অবস্থা পরীক্ষা করে কোনো পার্থক্য তারা খুঁজে পাননি। ব্রণের ওপর চকলেট বা এতে থাকা চর্বির কোনো প্রভাব রয়েছে বলেও মনে হয়নি তাদের।

আরও পড়ুন...

      ভিটামিন ডির ঘাটতি পূরণে কী করণীয়?

300-250
promo3