স্বাস্থ্য শিক্ষা

এমন ভারতবর্ষ দেখেনি কেউ আগে

শ্মশানের দাউ দাউ আগুনের মধ্যেই ভারতবাসি পেলো আরো করুণ খবর। টানা ৬ দিন ধরে সাড়ে ৩ লাখের কাছাকাছি ছিল যে সংখ্যা তা এবার ৪ লাখও ছাড়িয়ে গেছে।

আরও পড়ুন...

এমন ভারতবর্ষ দেখেনি কেউ আগে

শ্মশানের দাউ দাউ আগুনের মধ্যেই ভারতবাসি পেলো তার আরো করুন খবর। টানা ৪ দিন ধরে সাড়ে ৩ লাখের কাছাকাছি ছিল যে সংখ্যা তাও ছাড়িয়ে গেছে।

দেশে করোনায় মৃত্যুর মিছিলে ১১ হাজারেরও বেশি মানুষ

বিশ্বব্যাপি করোনার সংক্রমণ কমে আসার প্রেক্ষিতে দেশেও যে স্বস্তি ফিরে এসেছিল মাত্র এক মাসের ব্যবধানে তা আবার রুপ পাল্টে ফেলেছে। ফেব্রুয়ারি মাসের ২৪ তারিখে দেশে মৃত্যুর সংখ্যা ৫ জনে কমে এলেও তা এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে তা উর্দ্বগতিতে ছুটছে। মার্চের ২৫ তারিখে মৃত্যুর সংখ্যা ৩৪ হলেও এপ্রিলের ২৫ তারিখে তা ছাড়িয়েছে শতকের ঘর।

সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ

বিশ্বব্যাপি করোনার সংক্রমণ কমে আসার প্রেক্ষিতে দেশেও যে স্বস্তি ফিরে এসেছিল মাত্র এক মাসের ব্যবধানে তা আবার রুপ পাল্টে ফেলেছে। গত বছরের জুলাই মাসে একদিনে ৪০১৯ জনের দেহে শণাক্তকে যখন সর্বোচ্চ সংক্রমণ ধরা হয়েছিল তার থেকেও এবার তা ছাড়িয়ে গেছে। গত ২৯ মার্চ সর্বোচ্চ সংক্রমণ হয়েছে ৫ হাজার ১শ ৮১ জনের। গত ফেব্রুয়ারি মাসের ২৪ তারিখে দেশে মৃত্যুর সংখ্যা ৫ জনে কমে এলেও মার্চের শেষ সপ্তাহে সেই গতি উর্দ্বশ্বাসে ছুটছে। মোট সংক্রমণের পরিমাণও ৬ লাখ ছাড়িয়ে গেছে।

কমছে মৃত্যু, বাড়ছে স্বস্তি

অবশেষে স্বস্তির খবর আসছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা-ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, গত এক সপ্তাহে বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু ২০ শতাংশ কমেছে। তিন সপ্তাহ ধরে করোনায় মৃত্যু কমেছে। এছাড়া ছয় সপ্তাহ ধরে কমেছে করোনার রোগীর সংখ্যাও।

খালি হাতেই পার হতে হবে দ্বিতীয় ঢেউ !

শণাক্তের এক বছরের বেশি সময় পার হবার পরও এখনো দেখা মেলেনি করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় কার্যকর ভ্যাকসিনের। ফলে কোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলা অনেকটা খালি হাতেই করতে হচ্ছে বিশ্বকে, যে লড়াইয়ে মাত্র ৩৬৫ দিনে মারা গেছেন পৌণে ১৪ লাখের বেশি মানুষ।

সর্বত্রই এখনো অসহায় আত্মসমর্পণ

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত মানুষের সংখ্যা পৌণে ১৮ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। না দেখা এক নতুন ঘাতকের কাছে পৃথিবীর ১৭ লাখ ৭৩ হাজারের বেশি মানুষ হেরে গেলেন। প্রতি ২৪ ঘন্টায় মৃত্যুর গতি তা ১৮ লাখের দিকেই যেনো নিয়ে চলেছে। সর্বত্রই এখনো মানুষের অসহায় আত্মসমর্পণ।

মৃত্যু পৌণে ১২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত মানুষের সংখ্যা পৌণে ১২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। কোনো যুদ্ধ বিগ্রহে নয়, না দেখা এক নতুন ঘাতকের কাছে পৃথিবীর ১১ লাখ ৭৪ হাজার জনের বেশি মানুষ হেরে গেলেন।

পৌণে ১২ লাখ মানুষ মারা গেলেন

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত মানুষের সংখ্যা পৌণে ১২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। কোনো যুদ্ধ বিগ্রহে নয়, না দেখা এক নতুন ঘাতকের কাছে পৃথিবীর ১১ লাখ ৭৪ হাজার জনের বেশি মানুষ হেরে গেলেন।

করোনায় মৃত ৫ হাজার ছাড়ালো

শীতকালে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ওয়েব আসতে পারে-এমন শঙ্কার মধ্যেই দেশে এ ঘাতকের কাছে পরাজিত মানুষের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়ে গেলো।

করোনাভাইরাসে পৃথিবীর ৮ লাখ মানুষ নেই

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পৃথিবীর ৮ লাখ মানুষ মারা গেছেন। না দেখা এক নতুন ঘাতকের কাছে পৃথিবীর ৮ লাখের বেশি মানুষ হেরে গেছেন। এরপর-ই মৃত্যুর সারি থেমে গেছে বা থেমে যাবে-এমন কোনো নিশ্চয়তা পৃথিবীর কেউ দিতে রাজি নয়। শুধু তাই নয়, মৃত্যুর এই সংখ্যা সঠিক ভ্যাকসিন আবিস্কারের আগ পর্যন্ত কত লাখে গিয়ে পৌছাবে তারও কোনো কিনারা করতে পারছে না, পৃথিবীর তাবৎ প্রযুক্তির ধারক-বাহকরাও।

স্বাস্থ্য সেবায় যাত্রা শুরু

আঙুর কেন খাবেন?

ছোট এ রসালো ফলটিতে আছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, খনিজ ও ভিটামিন। আঙুরে রয়েছে ভিটামিন কে, সি, বি১, বি৬ এবং খনিজ উপাদান ম্যাংগানিজ ও পটাশিয়াম। আঙুর কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা ও হৃদরোগের মতো রোগ প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

সব টিপস...

চকলেটে ব্রণ হয়?

এই পরীক্ষাটি চালাতে গবেষকরা একদল ব্যক্তিকে এক মাস ধরে ক্যান্ডি বার খাওয়ায় যাতে চকলেটের পরিমাণ ছিল সাধারণ একটা চকলেটের চেয়ে ১০ গুণ বেশি। আরেক দলকে খাওয়ানো হয় নকল চকলেট বার। চকলেট খাওয়ানোর আগের ও পরের অবস্থা পরীক্ষা করে কোনো পার্থক্য তারা খুঁজে পাননি। ব্রণের ওপর চকলেট বা এতে থাকা চর্বির কোনো প্রভাব রয়েছে বলেও মনে হয়নি তাদের।

আরও পড়ুন...

      ভিটামিন ডির ঘাটতি পূরণে কী করণীয়?

300-250
promo3

চোখের সুরক্ষা কীভাবে করবেন?



পুরুষত্বহীনতায় বিচ্ছেদ বাড়ছে?

বিয়ের আগে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য আদালতের নির্দেশনা পাওয়ার ক্ষেত্রে দেশে…

গেমস দেখিয়ে শিশুকে খাওয়াচ্ছেন? জানুন এর অপকারিতা



ডেঙ্গু পরীক্ষার ফি ৫০০ টাকা নির্ধারণ

সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে এবং বেসরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগের পরীক্ষার ফি বেঁধে দিয়েছে সরকার।
ডেঙ্গুর NS1 পরীক্ষা করতে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা নেওয়া যাবে। CBC পরীক্ষার জন্য নেওয়া যাবে সর্বোচ্চ ৪০০ টাকা। এছাড়া IgG ও IgM এই দুটি পরীক্ষা করাতে হবে ৫০০ টাকার মধ্যে।
রোববার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে ঢাকার বেসরকারি স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানের মালিকদের সঙ্গে বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।
বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, “ডেঙ্গু রোগ নির্ণয়ের জন্য তিনটি টেস্ট করতে সব হাসপাতাল একই ফি নেবে। এটি আজ থেকে কার্যকর হবে।”
ডেঙ্গু শনাক্তে ঢাকার বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে রক্তের এই পরীক্ষাগুলো করাতে প্রতিটির জন্য এক থেকে দেড় হাজার টাকা লাগছিল। সরকারি এই সিদ্ধান্তের ফলে সেই খরচ এখন অর্ধেকের নিচে নেমে আসবে।
এডিস মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গুজ্বরে প্রকোপ দেখা দিয়েছে ঢাকায়, ধীরে ধীরে তা রাজধানীর বাইরেও ছড়িয়ে পড়ছে।
এই বছরে রোববার সকাল পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্তের সংখ্যা ১১ হাজার ৬৫৪ জন; এর মধ্যে বেসরকারি হিসাবে অন্তত ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।
তীব্র জ্বর, মাথা ব্যথা ও মাংসপেশিতে ব্যথা, শরীরে লালচে দানা ইত্যাদি ডেঙ্গু রোগের লক্ষণ হলেও এবার এর ব্যতিক্রম পাওয়া যাচ্ছে।
জ্বর হলে কাছের হাসপাতালে কিংবা চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে রক্তের পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দিয়েছে সরকার।
সতর্কতা
জ্বরে প্যারাসিটামল ছাড়া অন্য ব্যথানাশক ওষুধ খাওয়া থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা। পাশাপাশি রোগীকে বেশি বেশি তরল খাবার খাওয়াতে বলেছেন।
এবার ডেঙ্গুজ্বরে রক্তের ঘনত্ব কমে যাওয়ার লক্ষণ দেখা দেওয়ায় আক্রান্তের রক্তচাপ কমে যাচ্ছে কি না, তা নিয়মিত পরীক্ষা করতে বলা হচ্ছে।
জ্বর ভালো হওয়ার পরও ডেঙ্গুজনিত মারাত্মক জটিলতা দেখা দিতে পারে বলে সতর্ক করছেন চিকিৎসকরা।
এপ্রিল থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ায় তা প্রতিরোধে বাড়ির আশপাশ পরিচ্ছন্ন রাখতে বলা হচ্ছে।
অফিস, ঘর ও আশপাশে যে কোনো পাত্রে (এসির ট্রে/ফুলের টব) জমে থাকা পানি তিন দিনের মধ্যে পরিবর্তন করতে পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।
এডিস মশা সাধারণত দিনের বেলা কামড়ায় বলে দিনে ঘুমানোর ক্ষেত্রেও মশারি ব্যবহারের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

বাড়ছে এইডস রোগী

বিশ্বব্যাপি নানা বাস্তবতার মধ্য দিয়েই আজ পালিত হচ্ছে বিশ্ব এইডস দিবস। তথ্য প্রযুক্তির অবারিত আস্ফালনে প্রতিনিয়িত পাল্টে যাওয়া পৃথিবী জনস্বাস্থ্যে একইসাথে আশা ও হতাশার জায়গা তৈরি করছে। এর বাইরে নয়, বাংলাদেশও।