করোনা: সতর্ক ও ভালো থাকার পরামর্শ

নিজস্ব প্রতিবেদক, হেলথ নিউজ | ৯ মার্চ ২০২০, ২২:০৩ | আপডেটেড ১০ মার্চ ২০২০, ১১:০৩

population-grouth-2

নিজের এবং পরিবারের সকল সদস্যর ভালো থাকার চর্চা করুন।এ জন্য বিশ্বব্যাপি কাজ করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এছাড়া জাতীয়  জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান-আইইডিসিআর নিয়মিত সতর্কতামূলক পরামর্শ দেয়ার পাশাপাশি হটলাইনও স্থাপন করেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা

করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বেশকিছু নির্দেশনা রয়েছে। আন্তর্জাতিক এই স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, এই নির্দেশনা মেনে চললে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ অনেকটাই প্রতিরোধ করা সম্ভব। দেখে নিই, কী আছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনায়।

দুরত্ব বজায় রাখুন

যে কেউ হাঁচি বা কাশি দিলে তার থেকে কমপক্ষে এক মিটার বা তিন ফুট দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। কারণ হাঁচি ও কাশির সঙ্গে নাক ও মুখ থেকে অত্যন্ত ক্ষুদ্র কণা আকারে যা কিছু নিসৃত হয়, তাতে ভাইরাসের উপস্থিতি থাকতে হবে। ফলে কাছাকাছি থাকলে সেই কণাগুলো নিঃশ্বাসের মাধ্যমে অন্য কারও শরীরে ঢুকতে পারে। কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে তার হাঁচি বা কাশি এভাবেই অন্য কাউকেও আক্রান্ত করতে পারে।

কারও চোখ, নাক বা মুখ স্পর্শ করা যাবে না। কারণ হাতের স্পর্শ থেকে এসব অঙ্গে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে। তার সেই ভাইরাস তখন শরীরে প্রবেশ করবে।

হাত ধোয়ার বিকল্প নেই

নিয়মিতভাবে দুই হাত পরিস্কার রাখতে হবে। পরিচ্ছন্নতার জন্য ব্যবহৃত অ্যালকোহলযুক্ত তরল জীবাণুনাশক (হ্যান্ড রাব বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার) কিংবা সাবান-পানি ব্যবহার করতে হবে হাত ধোয়ার জন্য। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, হাতে কোনো ধরনের ভাইরাস থাকলে তা সাবান-পানি বা হ্যান্ড রাব মেরে ফেলতে সক্ষম।

হাঁচি-কাশির সময় সতর্কতা

হাঁচি ও কাশি দেওয়ার শিষ্টাচার মেনে চলতে হবে। অর্থাৎ হাঁচি বা কাশি দেওয়ার সময় হাত, টিস্যু বা রুমাল দিয়ে মুখ ও নাক ঢেকে রাখতে হবে। এ ক্ষেত্রে টিস্যু ব্যবহার করলে তা সঙ্গে সঙ্গে উপযুক্ত স্থানে ফেলতে হবে। আর রুমাল ব্যবহার করলে তা ধুয়ে ফেলতে হবে। হাঁচি-কাশির এই শিষ্টাচার কেবল করোনাভাইরাসের সংক্রমণই নয়, বেশিরভাগ ফ্লু (সর্দি-ঠান্ডার কারণ) ছড়ানো ঠেকাতে সক্ষম।

লক্ষণ দেখা দিলে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ

কারও শরীরে জ্বর এলে, কাশি দেখা দিলে কিংবা শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা দেখা দিলে সময় নষ্ট না করে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। এসময় বাইরে বের না হয়ে ঘরে থাকতে হবে। আর ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে সেভাবে চলতে হবে।

আই ই ডি সি আরের নির্দেশনা

বেশকিছু নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে আইইডিসিআরের পক্ষ থেকেও। নিয়মিত সাবান ও পানি দিয়ে দুই হাত ধুয়ে নিতে হবে (অন্তত ২০ সেকেন্ড ধরে)।

  • অপরিষ্কার হাতে চোখ, নাক ও মুখ স্পর্শ করবেন না
  • আক্রান্ত ব্যক্তিদের সংস্পর্শ এড়িয়ে চলুন
  • কাশি শিষ্টাচার মেনে চলুন (হাঁচি-কাশির সময় হাত, টিস্যু বা কাপড় দিয়ে নাক-মুখ ঢেকে রাখুন)
  • অসুস্থ পশু/পাখির সংস্পর্শ পরিহার করুন
  • মাছ-মাংস-ডিম ভালোভাবে রান্না করে খাবেন
  • অসুস্থ হলে ঘরে থাকুন, বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন হলে নাক-মুখ ঢাকার জন্য মাস্ক ব্যবহার করুন
  • জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বিদেশ ভ্রমণ করা থেকে বিরত থাকুন এবং এ সময়ে অন্য দেশ থেকে প্রয়োজন ছাড়া বাংলাদেশ ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করুন
  • অত্যাবশ্যকীয় ভ্রমণে সাবধানতা অবলম্বন করুন
  • কারও সঙ্গে হাত মেলানো (হ্যান্ড শেক) ও কোলাকুলি থেকে বিরত থাকুন
  • অত্যাবশ্যকীয় ভ্রমণে সাবধানতা অবলম্বন করুন

এছাড়াও রোববার (৮ মার্চ) সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত বলে সন্দেহ হলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের কন্ট্রোল রুমের হটলাইন ০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০৯১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪ ও ০১৯২৭৭১১৭৮৫ এ যোগাযোগের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।  

বিষয়:

নোটিশ: স্বাস্থ্য বিষয়ক এসব সংবাদ ও তথ্য দেওয়ার সাধারণ উদ্দেশ্য পাঠকদের জানানো এবং সচেতন করা। এটা চিকিৎসকের পরামর্শের বিকল্প নয়। সুনির্দিষ্ট কোনো সমস্যার জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়াই শ্রেয়।

এমন ভারতবর্ষ দেখেনি কেউ আগে

এমন ভারতবর্ষ দেখেনি কেউ আগে

দেশে করোনায় মৃত্যুর মিছিলে ১১ হাজারেরও বেশি মানুষ

সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ

কমছে মৃত্যু, বাড়ছে স্বস্তি

খালি হাতেই পার হতে হবে দ্বিতীয় ঢেউ !

সর্বত্রই এখনো অসহায় আত্মসমর্পণ

মৃত্যু পৌণে ১২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে

পৌণে ১২ লাখ মানুষ মারা গেলেন

করোনায় মৃত ৫ হাজার ছাড়ালো

করোনাভাইরাসে পৃথিবীর ৮ লাখ মানুষ নেই

সাড়ে ৭ লাখের বেশি মানুষ মারা গেলেন করোনায়

বিশ্বে একদিনেই ২ লাখ আক্রান্ত

আক্রান্ত ও মৃত্যু বাড়ছেই

নির্ধারিত মুল্যে আইসিডিডিআরবিতে করোনা টেষ্ট

২৪ ঘন্টায় প্রায় ৪ হাজার আক্রান্ত

৩৮ থেকে বেড়ে মৃত্যু ৪৩

ব্রাজিলে একদিনেই শনাক্ত ৫৪ হাজারের বেশি

সপ্তাহ ধরেই মৃত্যু কমপক্ষে ৩৫

মৃত্যু নেমেছে ৪৫ থেকে ৩৭ জনে

স্বাস্থ্য সেবায় যাত্রা শুরু

আঙুর কেন খাবেন?

ছোট এ রসালো ফলটিতে আছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, খনিজ ও ভিটামিন। আঙুরে রয়েছে ভিটামিন কে, সি, বি১, বি৬ এবং খনিজ উপাদান ম্যাংগানিজ ও পটাশিয়াম। আঙুর কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা ও হৃদরোগের মতো রোগ প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে।

সব টিপস...

চকলেটে ব্রণ হয়?

এই পরীক্ষাটি চালাতে গবেষকরা একদল ব্যক্তিকে এক মাস ধরে ক্যান্ডি বার খাওয়ায় যাতে চকলেটের পরিমাণ ছিল সাধারণ একটা চকলেটের চেয়ে ১০ গুণ বেশি। আরেক দলকে খাওয়ানো হয় নকল চকলেট বার। চকলেট খাওয়ানোর আগের ও পরের অবস্থা পরীক্ষা করে কোনো পার্থক্য তারা খুঁজে পাননি। ব্রণের ওপর চকলেট বা এতে থাকা চর্বির কোনো প্রভাব রয়েছে বলেও মনে হয়নি তাদের।

আরও পড়ুন...

      ভিটামিন ডির ঘাটতি পূরণে কী করণীয়?

300-250
promo3